Tuesday , September 25 2018
Home / বাংলাদেশ / অটিস্টিক মুগ্ধের আঁকা ছবিতে মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী; লাখ টাকা পুরস্কার

অটিস্টিক মুগ্ধের আঁকা ছবিতে মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী; লাখ টাকা পুরস্কার

rajshahi-mugdho-photo-1

রাজশাহী প্রতিনিধি : রাজশাহীর অটিস্টিক কিশোর মুয়িয আকিব মুগ্ধের আঁকা ছবিতে মুগ্ধ হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে গত ঈদ-উল-আযহার আগে ১৭ বছরের মুগ্ধ তার আঁকা জল রঙের একটি ছবি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে জমা দিয়েছিল। ওই ঈদে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ শুভেচ্ছা কার্ডে ছবিটি ব্যবহার করা হয়। প্রধানমন্ত্রী তার ছবিতে মুগ্ধ হয়ে সম্মানীস্বরুপ তাকে এক লাখ টাকা পুরস্কার দিয়েছেন।

মুগ্ধ রাজশাহী মহানগরীর দড়িখরবোনা এলাকার শিক্ষক দম্পতি তরিকুল হক ও মনজুরা হকের ছেলে। সোমবার রাতে ফাউন্ডেশন ফর উইমেন এ্যান্ড চাইল্ড এ্যাসিসট্যান্সের (এফডব্লিউসিএ) রাজশাহীর প্রশাসনিক কর্মকর্তা আবদুস সালাম এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন। মুগ্ধ এফডব্লিউসিএ পরিচালিত ‘প্রয়াস’ ও ‘আনন্দধারা’ সেন্টারের বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশু।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রীর কার্যলয় থেকে প্রধানমন্ত্রী অ্যাসাইনমেন্ট অফিসার মোহাম্মদ শামীম মুসফিক স্বাক্ষরিত চিঠিটি মুগ্ধ সোমবারই (২১ নভেম্বর) হাতে পেয়েছে। গত ৮ নভেম্বর চিঠিতে স্বাক্ষর করেছেন মোহাম্মদ শামীম মুসফিক। চিঠি পেয়ে দারুণ উচ্ছসিত মুগ্ধ ও তার বাবা-মা। মুগ্ধের এই অর্জনে সংস্থার পেট্রোন ও মেন্টর বোর্ডের প্রধান রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনও ঢাকা থেকে সংস্থার সবাইকে ক্ষুদে বার্তায় শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

সংস্থার সিনিয়র বোর্ড সদস্য সমাজসেবী শাহীন আকতার রেণী মুঠোফোনে সংস্থার বলেন, ‘আমাদের সবার প্রচেষ্টায় বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুরা আরো এগিয়ে যাবে বলে আমি বিশ^াস করি। আমরা সবাই মিলে যে কঠোর শ্রম ও ধৈর্য্য নিয়ে এসব শিশুদের উন্নয়নে কাজ করছি তা সফল হবেই।’

মুগ্ধের এই অর্জনে এফডব্লিউসিএ’র নির্বাহী পরিচালক ওয়াহিদা খানম তার শিক্ষক-শিক্ষিকা ও তার মা-বাবাকে অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, ‘আমরা কঠোর পরিশ্রম করে এসব শিশুদের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। মুগ্ধর এই অর্জন আমাদের প্রেরণা জোগাবে। আমরা খুব খুশি।’

তিনি জানান, এ বছর বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবসে অটিস্টিক শিশুদের আঁকা ছবি নিয়ে রাজশাহীতে প্রদর্শনী হয়েছে। প্রদর্শনীতে ৪২টি ছবি বেশ ভালো দামে বিক্রি হয়েছে। এসব ধারাবাহিক কার্যক্রমের মাধ্যমেই তারা অটিস্টিক শিশুদের উন্নয়নে কাজ করতে চান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*