Monday , July 23 2018
Home / বাংলাদেশ / রংপুর বিভাগ / এই পর্যন্ত রসিক নির্বাচনে মনোনয়ন সংগ্রহ করলেন ১০ জন মেয়র প্রার্থী

এই পর্যন্ত রসিক নির্বাচনে মনোনয়ন সংগ্রহ করলেন ১০ জন মেয়র প্রার্থী

মো: ইসতিয়াক ফারদিন সজীব, রংপুর:

রংপুর সিটি কর্পোরেশ নির্বাচনে প্রার্থীদের যোগ্যতা ও অযোগ্যতা নির্ধারণ করে পরিপত্র জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। গতকাল বুধবার ইসির যুগ্নসচিব (চলতি দায়িত্ব) ফরহাদ আহমেদ খান স্বাক্ষরিত পরিপত্রে ২০০৯ সালের স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশ) আইনের ৯ ধারা অনুসারে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে নির্বাচনের যোগ্যতা ও অযোগ্যতা ব্যাখ্যাসহ তুলে ধরা হয়।

এতে বলা হয়, কোন প্রার্থী ফৌজদারি আইন লঙ্ঘন বা নৈতিক স্খলনের কারণে কমপক্ষে দুই বছরের জন্য কারাদ-ে দ-িত হলে তিনি প্রার্থী হতে পারবেন না। এছাড়া এই সাজার বিরুদ্ধে আপিল করলেও সাজা বাতিল না হওয়া পর্যন্ত সেই ব্যক্তি প্রার্থী হতে পারবেন না। সংশ্লিষ্ট আইনটির ৯ ধারার উপধারা (২) (ঘ) তে এই বিধান বর্ণিত আছে। অন্যদিকে একই আইনের (২) (ঙ) উপধারায় হাইকোর্টের দেয়া ব্যাখ্যা অনুযায়ী মেয়র পদটি লাভজনক হওয়ায় এই পদে থাকা অবস্থায় নির্বাচন করতে পারবেন না বর্তমান মেয়র। তবে কাউন্সিলর পদটি সার্বক্ষণিক লাভজনক পদ না হওয়ায় কাউন্সিলরগণ স্বপদে বহাল থেকে নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন। সে অনুযায়ী, বর্তমান মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টুকে নির্বাচনে অংশ নিতে পদত্যাগ করতে হবে।

গতকালই এই পরিপত্র রিটার্নিং অফিসার ও রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে পাঠানো হয়েছে। এদিকে, রসিক নির্বাচনে মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত ২৮০ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বলে জানা গেছে। এর মধ্যে মেয়র পদেই মনোনয়নপত্র তুলেছেন ১০ প্রার্থী।

রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, এ পর্যন্ত মেয়র পদে জাতীয় পার্টির রংপুর মহানগর সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, সাবেক সংসদ সদস্য জাপা নেতা আসিফ শাহরিয়ার, আওয়ামীলীগের নেতা রাশেক রহমান, স্বতন্ত্র বীর প্রতীক আব্দুল মজিদ, বিএনপির কাওছার জামান বাবলা, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের এটিএম গোলাম মোস্তফা, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সুইটি আনজুম, মেহেদী হাসান বনি, আলহাজ্ব তানবীর আশরাফীসহ ১০ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু এখনও মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেননি।

ঘোষিত তফসিলে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ, জমাদান ও প্রত্যাহারের জন্য ৫ নভেম্বর থেকে ২২ নভেম্বর পর্যন্ত সময় নির্ধারণ করা হয়। তফসিল ঘোষণার পর থেকে ১১ জন সহকারী রিটার্নিং অফিসারের নিকট থেকে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করছেন প্রার্থীরা। আগামী ২২ নভেম্বর বিকেল ৫টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ, জমাদান ও প্রত্যাহারের সুযোগ পাবে প্রার্থীরা। আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা সুভাষ চন্দ্র সরকার জানান, ভোটকেন্দ্রে ইভিএম ব্যবহারের ব্যাপারে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। এছাড়া, ভোটকেন্দ্রে সেনা মোতায়েন করা হবে না বলে জানান এই কর্মকর্তা। সবকিছু ঠিক থাকলে মেয়র, কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে প্রার্থী সংখ্যা ৪ শতাধিক ছাড়িয়ে যাবে। সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন স¤পন্ন করতে নির্বাচন কমিশন যাবতীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*