Thursday , October 18 2018
Home / বাংলাদেশ / ঢাকা বিভাগ / টিএসসির ভাইরাল “চুমুর” ছবি তোলা সেই, আলোকচিত্রশিল্পীকে মারধর

টিএসসির ভাইরাল “চুমুর” ছবি তোলা সেই, আলোকচিত্রশিল্পীকে মারধর

সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় বৃষ্টিভেজা একটি যুগল ছবি তুলে রাতারাতি আলোচনায় চলে আসেন আলোকচিত্রশিল্পী জীবন আহমেদ। সোমবার দিনব্যাপী ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনায় ছিল।

সাম্প্রতিককালের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় সবচেয়ে ভাইরাল ছিল ছবিটি। এমনকী মঙ্গলবারও সেই আলোচনায় ভাটা পড়েনি।

কিন্তু সেই ছবি তোলার অপরাধে নিজের পেশার লোকদের হাতেই মারধরের শিকার হয়েছেন এই আলোকচিত্রশিল্পী- এমনটাই অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে, টিএসসির যে স্থানে ছবিটি তোলা হয়েছে সেখানেই তাঁকে প্রকাশ্যে মারধর করা হয়েছে জীবন আহমেদকে। লাঞ্ছনাকারীরা সকলেই আলোকচিত্রশিল্পী বলে জানা গেছে। একটি ইংরেজি দৈনিকের এক আলোকচিত্র সাংবাদিকেরও নাম যুক্ত রয়েছে এই ঘটনায়।

বিষয়টি  নিশ্চিত করে জীবন আহমেদের সহকর্মী মাকসুদুল হক ইমু কালের কণ্ঠকে বলেন, আজ জীবন আহমেদকে মারধর করা হয়েছে। যারা মেরেছে তারাও একই পেশার সাথে যুক্ত। মূলত জীবনের কাছে তারা সিরিজ ছবিগুলো চেয়ে না পেয়ে মারধর করে।

জীবনকে মারধরের সময় তাঁকে বলা হয়েছে এই পেশাকে নাকি জীবন কলঙ্কিত করেছে।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হয় আলোকচিত্রশিল্পী জীবন আহমেদের সঙ্গে। তিনি বিষয়টি সম্পর্কে প্রথমে কোনো কথা বলতে রাজি না হলেও এক পর্যায়ে বলেন, আমি কার বিরুদ্ধে কথা বলবো? তিনি বলেন, আমার পেশার লোকেরাই আমাকে মেরেছে। আমি কিছু বলতাম না তারা যদি আমাকে আড়ালে নিয়ে গিয়ে মারধর করতো। কিন্তু তারা আমাকে মেরেছে প্রকাশ্যে টিএসসিতে।

জীবন আহমেদ বলেন, আমাকে মারার সময় তারা আমাকে বলছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের নির্দেশে মারছে। আমি নাকি কলঙ্কিত করেছি আলোকচিত্রশিল্পী সমাজকে। কিন্তু প্রক্টর স্যার একটু আগে ফোন দিয়ে বললেন, এরকম নির্দেশনা তিনি দেননি দিতে পারেন না। আমিও জানি তারা গায়ের ঝাল মিটিয়েছে।

উল্লেখ্য, গতকাল জীবন আহমেদের তোলা আলোকচিত্রটি প্রথমে তার নিজস্ব কর্মরত অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত হয়। এরপর তার ফেসবুক হ্যান্ডেল থেকে তা ছড়িয়ে পড়ে। মঙ্গলবারের মারধরের ঘটনায় জীবন আহমেদ আজ ফেসবুকে লিখেছেন, ‘আজ থেকে সাংবাদিকতা থেকে বিদায় নিলাম। ‘

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*