Thursday , October 18 2018
Home / বাংলাদেশ / রংপুর বিভাগ / ঠাকুরগাঁওয়ে দিন দিন ঝুকিপূর্ণ পেশায় নিয়োজিত হচ্ছে শিশুরা , বঞ্চিত শিক্ষা থেকে

ঠাকুরগাঁওয়ে দিন দিন ঝুকিপূর্ণ পেশায় নিয়োজিত হচ্ছে শিশুরা , বঞ্চিত শিক্ষা থেকে

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি:
ঠাকুরগাঁওয়ের রুহিয়ায় শিশুরা ঝুকিপূর্ণ বিভিন্ন পেশায় জড়িয়ে পড়ছে। ফলে স্কুলে দিন দিন ঝড়ে পড়ার হার বৃদ্ধি পাচ্ছে। এদের বেশীর ভাগ শিশুই ১২/ ১৩ বছর বয়সী। রুহিয়ার বিভিন্ন বাজারে ঘুরে শিশুদের এ ভয়াবহ চিত্র দেখা যায়। বিশেষ করে ওয়েল্ডিং কারখানা, বিভিন্ন ওয়ার্কশপ, ইটভাটা, হোটেল- রেস্তোরা, কাঠ ফ্রাই মেশিনে, বেকারীতে অহরহ শ্রমিকের কাজ করছে শিশুরা। কেউ পেটের তাগিদে আবার কেউ বা পরিবারের সচেতনতার অভাবে জড়িয়ে পড়ছে বিভিন্ন ঝুকিপূর্ণ পেশায়। শিশু শ্রম বন্ধে সরকারী- বেসরকারী কোন উদ্যোগই লক্ষণীয় নয়।

রুহিয়া কাকলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র আবেদ আলী ও আমির আলী কাজ করে মধুপুর জাকের ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপে। তারা দুজনেই নিয়মিত স্কুল না করে উক্ত পেশায় নিয়োজিত রয়েছে। রুহিয়া মধুপুর কুড়ালী পাড়ার রতন চন্দ্র বর্মনের পুত্র বকুল চন্দ্র বর্মন কাকলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্র। সে মধুপুর কার্তিক এর হোটেল এ শ্রমিক হিসেবে কাজ করে। অভিরাম এর পুত্র অপু সেও কাকলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্র। সে রং মিস্ত্রির কাজ করে। কশালগাঁও একরামিঞা মাদ্রাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্র রাজু কাজ করে তার বাবা তরিকুলের চা দোকান সেনিহাড়ী পুকুরপাড়ে। সেনিহাড়ী’র মৃত- অধিকা এর পুত্র রিপন রায় সে সেনিহাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে ৪র্থ শ্রেণী পাশ করেই কেলার ফার্ণিচার দোকানে কাঠ মিস্ত্রির কাজ করে। লাহিড়ী দোলুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র বিপ্লব এক বছর পূর্বেই রামনাথের রবিন ওয়েলডিং ওয়ার্কশপে ঝুকিপূর্ণ পেশায় নিয়োজিত হয়েছে।

এছাড়াও রঞ্জিত রায়, ইমরানসহ আরো অনেক শিশুকেই রুহিয়ায় ঝুকিপূর্ণ পেশায় নিয়োজিত থাকতে দেখা যায়। এর ফলে একদিকে শিশুরা বঞ্চিত হচ্ছে লেখাপড়া থেকে অপর দিকে দিনে দিনে বেড়ে যাচ্ছে মাত্রাতিরিক্ত হারে শিশু শ্রম। শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ বদরুল ইসলাম ও সিরাজুল ইসলাম বলেন- শিশুরা যে হারে ঝুকিপূর্ণ পেশায় দিনে দিনে ধাবিত হচ্ছে তা জাতির জন্য কখনই সুখকর হবে না। বর্তমান অবস্থার প্রেক্ষিতে সরকারী- বেসরকারী ব্যবস্থাপনায় শিশুদেরকে প্রনোদনা প্যাকেজের আওতায় নিয়ে এসে শিক্ষায় মনোনিবেশ করাতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*