Tuesday , September 25 2018
Home / বাংলাদেশ / রংপুর বিভাগ / ঠাকুরগাঁওয়ে শ্বশুরবাড়ির নির্যাতনে গৃহবধূ হাসপাতালে

ঠাকুরগাঁওয়ে শ্বশুরবাড়ির নির্যাতনে গৃহবধূ হাসপাতালে

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি :

ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রভাষক আনোয়ার ইসলাম ও তার পরিবারের সদস্যের হাতে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন স্ত্রী স্কুলশিক্ষিকা নুরুন নাহার তানজিলা (২৮)। শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় সদর উপজেলার শুখানপুকুরী লাউথুতি গ্রাম থেকে নির্যাতিত গৃহবধূ তানজিলাকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পীরগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রভাষক আনোয়ার হোসেন সদর উপজেলার শুখানপুকুরী লাউথুতি গ্রামের হেলাল উদ্দিনের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, স্কুলশিক্ষিকা তানজিলাকে বিয়ের পর থেকে পীরগঞ্জ সরকারি কলেজের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রভাষক আনোয়ার শ্বশুর বাড়িতে থাকতেন। গত ২০ দিন ধরে আনোয়ার স্ত্রী তানজিলার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। শুক্রবার সকালে আনোয়ার নিজ বাড়ি শুকানপুকুরী এলাকায় যাওয়ার জন্য তানজিলাকে মুঠোফোনে বলেন। বিকেলে তানজিলা খালাতো দুই বোনসহ স্বামী আনোয়ারের বাড়িতে গেলে শ্বশুর হেলাল উদ্দিন, স্বামী আনোয়ারসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা তানজিলাকে বেধড়ক মারধর করেন।

এ সময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তানজিলার মাথা ফেটে গিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে তানজিলা। স্থানীয় আশরাফুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি তানজিলাকে রক্ষা করতে গেলে তাকেও শ্বশুরবাড়ির লোকজন আটকে রাখে। পরে স্থানীয় লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় তানজিলাকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের ভর্তি করেন এবং পুলিশে খবর দিলে আশরাফুল ইসলামকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

নির্যাতিত গৃহবধূ স্কুলশিক্ষিকা তানজিলা জানান, দীর্ঘদিন সম্পর্কের পর আনোয়ারের সঙ্গে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই সে আমাদের বাড়িতে থাকত। মাঝেমধ্যে যৌতুকের জন্য চাপ দিত। সে আমার বাবার কাছে শহরে বাড়ি করে চায়। কিন্তু আমার বাবার পক্ষে এত টাকা দেয়া সম্ভব না।

নির্যাতনের ঘটনার বিষয়ে কলেজের প্রভাষক আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

তানজিলার বাবা মুক্তিযোদ্ধা শেখ নুরুল ইসলাম জানান, আনোয়ার নানা টালবাহানার পর চলতি বছরের ২৮ মে তানজিলাকে বিয়ে করে আমার বাড়িতে থাকা শুরু করে। হঠাৎ আনোয়ার আমার মেয়েকে তার নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী পরিবারের সদস্যসহ তানজিলাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন চালিয়ে হত্যার চেষ্টা করে।

এ ঘটনায় আনোয়ার ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

শুকানপুকুরী ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান জানান, ইতিপূর্বে কলেজ শিক্ষক আনোয়ার ও স্কুলশিক্ষিকা তানজিলার বিষয়ে অনেক ঘটনা ঘটেছে। আজ (শুক্রবার) তানজিলা শ্বশুর বাড়িতে আসলে স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের দ্বারা নির্যাতনের শিকার হয়েছে বলে জানতে পেরেছি।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার উপ-পরিদর্শক বেলাল জানান, খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে আশরাফুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তিকে ঐ এলাকা থেকে উদ্ধার করে। কথা বলে পরবর্তিতে অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*