Monday , June 18 2018
Home / বাংলাদেশ / নাটোরে ২ ভাইকে কুপিয়ে হত্যা

নাটোরে ২ ভাইকে কুপিয়ে হত্যা

murder

নাটোর: আধিপত্য বিস্তার ও নির্বাচনী বিরোধ নিয়ে নাটোরের সিংড়ায় মোজাফর হোসেন মোজাই নামে সাবেক এক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে ও তার বড় ভাই হাছেন আলীর পা কেটে বিচ্ছিন্ন করে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ। এসময় অপর ছোট ভাইয়ের ডান হাতের আঙ্গুল কেটে দেওয়া হয়।

শুক্রবার ভোরে উপজেলার ২ নম্বর ডাহিয়া ইউনিয়নের চলনবিল অধ্যুষিত (সর্বহারা এলাকা হিসেবে পরিচিত) বড়গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত মোজাফর হোসেন (মোজাই ডাকাত) ও হাছেন আলী বড়গ্রামের মৃত আব্দুস সোবহানের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, চলনবিলের প্রত্যন্ত ডাহিয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য মোজাফর হোসেনের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল বর্তমান ইউপি সদস্য সাবেক ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইউনুস আলীর। সম্প্রতি অত্র ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নির্বাচনে মোজাই ডাকাত হেরে যাওয়ায় দুজনের বিরোধ বড় আকার ধারণ করে। তবে বিরোধকারী উভয় পরস্পর আপন চাচাতো ভাই বটে। শুক্রবার ভোরে ইউনুস আলীর লোকজন মোজাফর হোসেন ও তার দুই ভাই হাছেন আলী এবং মহসিনকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরে মোজাফর হোসেনকে কুপিয়ে হত্যা করে স্থানীয় আসমা বেগম নামে এক নারীর বাড়ির বারান্দায় ফেলে রেখে যায়। এসময় অপর দুই সহোদর হাছেন আলীর ডান পা এবং মহসিনের হাতের আঙ্গুল কেটে বিচ্ছিন্ন করে দেয় প্রতিপক্ষ। সকালে হাছেন আলীকে হাসপাতালে নেয়ার সময় তিনি মারা যান। অপর আহত ছোট ভাইকে গুরুতর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে।

নিহত মোজাফ্ফরের স্ত্রী রাবিয়া বেগম জানান, গভীর রাতে ইউনুছ আলী ও তার লোকজন আমার স্বামীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে। এসময় তার দুই ভাই আমার স্বামীকে বাঁচাতে গেলে তাদেরকেও কুপিয়ে জখম করা হয়। নির্বাচনের পর থেকেই আমার স্বামীকে হুমকি দেয়া হচ্ছিল।

২ নং ডাহিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এমএম আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বর্তমান ইউপি সদস্য ইউনুস আলীর সাথে মোজাফফর হোসেন (মোজাই ডাকাত)-এর বিরোধ চলে আসছিল। বিরোধের জের ধরেই এই ঘটনা ঘটেছে।

সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন ম-ল জানান, খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ পর্যন্ত দুজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। তবে কি কারণে এই ধরনের হত্যাকা- ঘটেছে, তা পরে বলা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*