Wednesday , September 26 2018
Home / অর্থনীতি / নারীর জীবন পিছিয়ে পড়ার নয়,আত্মবিশ্বাস যোগান দেয় সফলতার

নারীর জীবন পিছিয়ে পড়ার নয়,আত্মবিশ্বাস যোগান দেয় সফলতার

রুবেল ইসলাম,মিঠাপুকুর প্রতিনিধি

রংপুর জেলার মিঠাপুকুর উপজেলার পায়রাবন্দ ইউনিয়নের মোঃ সালাম মিয়া ও ওজিফা বেগম এর কন্যা মিতু খাতুন।তাদের পরিবারের সদস্য সংখ্যা ৫জন।মিতু পরিবারের সবচাইতে বড় সন্তান।সে তার পরিবারের আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে পড়াশুনা চালিয়ে যেতে পারেনি।তাছাড়া টানাছেড়ার সংসারে শুধু অভাব আর অনটন লেগেই থাকে।

সংসারের হাল ধরতে চায় মিতু কারণ তার জন্ম নারী জাগরণের পূর্ণভূমিতে।হেরে যাওয়ার জন্য তার জন্ম হয় নি এটা তার দৃঢ় বিশ্বাস।এজন্য সে খুঁজতে থাকে কাজের সন্ধান।কিভাবে?কি?করবেেএ নিয়ে তার মনে বাধে সংশয়।এই সংশয়িত মনে বাসা বাঁধে আরডিআরএস বাংলাদেশের (ইওয়াইডভ্লিউ)প্রজোক্ট।

এম্পাওয়ার ইয়ূথ ফর ওয়ার্ক প্রকল্প শুরু হওয়ার সময় ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে মিতু ইয়ূথ ফোরামের সাথে যুক্ত হয় এবং এ ফোরামের মিটিং এ প্রকল্পের উদ্দেশ্য সম্পর্কে অবহিত হওয়ার পর মিতু দক্ষতা মূলক প্রশিক্ষণ নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে। সে অনুযায়ী সে আবেদনপ্ত্র,জন্ম নিবন্ধন ও ছবিসহ ওয়ার্ড ফোরামের কাছে যাবতীয় কাগজ দাখিল করে।আগষ্ট মাসে ত্রিপক্ষীয় চুক্তির মাধ্যমে পায়রাবন্দের বৈরাগীগঞ্জে গড়ে উঠা( এ+ সোয়াটারে)মিতু নিটিং এন্ড লিংকিং এর ওপর ১ মাস ব্যাপী প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।প্রশিক্ষণে নিয়মিত উপস্থিতি ও মনোযোগের কারণে কাজের প্রতি আগ্রহ শৃংঙ্খলাবোধ দেখে এ+ সোয়াটারের পক্ষ থেকেকোম্পানীতে কাজ করার প্রস্তাব দেয়।মিতু তার পরিবারের সম্মতিক্রমে লিংকিং এর কাজে যোগদান করেন।মিতু সেপ্টম্বর মাসে প্রোডাকশনের ভিত্তিতে ৩২০০/- টাকা মজুরী পায়।১ম মাসের বেতন পেয়ে মিতু খুবই আনন্দিত।আর তার পরিবারে সচ্ছলতা ফিরে্বোনতে সে মূখ্য ভূমিকা পালন করবে বলে জানায় মিতু।মিতু আরও বলেন-“ নারীর জীবন পিছিয়ে পড়ার নয়,আত্মবিশ্বাস যোগান দেয় সফলতার”যার পটলে সে কিছুটা হলেও সফলতা অর্জন করেছে বলে মনে করেন।

এম্পাওয়ার ইয়ূথ ফর ওয়ার্ক প্রকল্পের কার্যক্রম দেখে মিতুর বাবা ও মা দুজনেই খুব খুশি।মিতুর বাবা মা বলেন- আমাদের পরিবারে সচ্ছলতা পিরিয়ে আনতে অভাবনীয় ভূমিকা পালন করছে এই প্রকল্প।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*