Saturday , August 18 2018
Home / বাংলাদেশ / রংপুর বিভাগ / নীলফামারী জেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও সদস্যদের দায়িত্বভার গ্রহন

নীলফামারী জেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও সদস্যদের দায়িত্বভার গ্রহন

নীলফামারী জেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন ও ১৪ জন সদস্য এবং ৫ জন সংরক্ষিত নারী সদস্য দায়িত্বভার গ্রহন করেছেন। আজ রবিবার দুপুর একটার দিকে জেলা পরিষদ কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তারা দায়িত্বভার গ্রহন করেন।

দায়িত্ব ভার গ্রহনের পর চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে জেলা পরিষদ হল রুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে জেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোটার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ,সদস্য ও নারী সদস্য ও জেলা পরিষদের নির্বাচিত সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীনের সহ ধর্মীর্নী লায়লা আবেদীন।

জেলা পরিষদের প্রথম চেয়ারম্যান ও সদস্যরা দায়িত্বভার গ্রহনের আগে জেলা শহরের এক বিশাল শো ডাউন করে। যে শো ডাউন ছিল মুলতঃ ঘুষ,দূর্নীতি,সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধের অঙ্গিকার নিয়ে।

দুপুর সোয়া বারোটায় জেলা শহরের বড় বাজার হতে মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীনের নেতৃত্বে সকল সদস্য এবং জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ফজলুল হকের নেতৃত্বে বীরমুক্তিযোদ্ধারা বাদ্যযন্ত্র সহকারে শোভাযাত্রা শুরু করেন।

শোভাযাত্রা শুরুর প্রাক্কালে মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন আজ হতে জেলা পরিষদের মাধ্যমে এ জেলার উন্নয়ন কর্মকান্ড শুরু করবেন তিনি। এ জন্য  জেলাবাসীর সহযোগীতা কামনা করেন তিনি।

শোভাযাত্রায় জয়নাল আবেদীন শহরের চৌরঙ্গী মোড়েও সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন।এরপর তিনি শোভাযাত্রা নিয়ে জেলা পরিষদের ভবনে প্রবেশ করেন।

এখানে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও সদস্যদের ফুলের শুভেচ্ছা জানান জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ,জে,এম এরশাদ আহসান হাবিব সহ সকল কর্মকর্তা কর্মচারীগন।

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের কক্ষে চেয়ারে বসার পর সেখানে দৈনিক নীলফামারী বার্তার সম্পাদক ও দৈনিক ইত্তেফাকের নীলফামারী প্রতিনিধি শীষ রহমান জয়নাল আবেদীনকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানায়।

উল্লেখ যে গত ২০১৬ সালের ২৮ ডিসেম্বর প্রথম জেলা পরিষদ নির্বাচনে নীলফামারীতে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন চেয়ারম্যান ও ১৫ জন সদস্য এবং ৫ জন নারী সদস্য নির্বাচিত হন। এদের মধ্যে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী বাবু ঢাকায় শপথ নেয়ার আগের দিন ১৭ জানুয়ারী হৃদরোগ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরন করেন। ফলে উক্ত ৭ নম্বর ওয়ার্ডটি নির্বাচন কমিশন হতে শুন্য ঘোষনা করা হয়েছে। সেখানে অচিরেই পুনরায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান জেলা নির্বাচন অফিসার জিলহাজ উদ্দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*