Monday , June 18 2018
Home / জাতীয় / বাংলাদেশকে জঙ্গি রাষ্ট্র বানানোর ষড়যন্ত্র আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশকে জঙ্গি রাষ্ট্র বানানোর ষড়যন্ত্র আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশকে নিয়ে আন্তর্জাতিকভাবে ষড়যন্ত্র চলছে। বাংলাদেশকে জঙ্গি রাষ্ট্র হিসেবে প্রমাণ করতে, ইসলামকে জঙ্গি ধর্ম ও মুসলমানদের জঙ্গি হিসেবে প্রমাণের চেষ্টা হয়েছে। এ ধরনের চেষ্টা একদিনে হয়নি। ১৯৭১ সালের পর থেকে এ চেষ্টা চলছে। আর অপচেষ্টা রোধ করা শুধু পুলিশ কিংবা র‌্যাবের পক্ষে সম্ভব নয়, এজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

শনিবার রাজধানীর সরকারি তিতুমীর কলেজে ‌‘মাদক ও জঙ্গিবিরোধী সমাবেশ এবং কনসার্ট’ এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার (ডিএমপি) মো. আছাদুজ্জামান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সংসদ সদস্য এ কে এম রহমতুল্লাহ।

 

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, আজকের পুলিশ আর ১০ বছর আগের পুলিশ এক নয়। আজকের পুলিশ জনগণের পুলিশ, জীবনের বিনিময়ে শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার পুলিশ।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র হলেও ধর্মহীন নয়। যে যার ধর্ম পালন করছে। তবে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা চলছে। কখনও তা ইসলামী ছাত্রশিবির, হুজি, আনসারুল্লাহ বাংলাটিম বা জেএমবি ও নয়া জেএমবি নামে। নতুন করে বলা হচ্ছে বাংলাদেশে আইএস আছে, এর সবই আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ। দেশের মানুষ ঐক্যবদ্ধ বলেই এর কোনোটিই টিকছে না।

মাদক সম্পর্কে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশে ইয়াবা তৈরির কারখানা নেই, কিন্তু ইয়াবা পাওয়া যায়, দেশে ফেনসিডিল নেই কিন্তু ফেনসিডিল পাওয়া যায়। কারণ একটাই মিয়ানমার নাফ নদী দিয়ে ইয়াবা ও ভারত ফেনিসিডিল চোরাই পথে বাংলাদেশে পাঠাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী মাদকমুক্ত করণে সীমান্তে রাস্তা নির্মাণের জন্য বিজিবিকে নির্দেশ দিয়েছেন। কাজ এগিয়ে চলছে।

 

তিনি বলেন, ছাত্র-শিক্ষক-জনতা-পুলিশ-সাংবাদিক যদি ঐক্যবদ্ধ হয় তবে মাদক মুক্ত করা কোনো কঠিন কাজ হবে না। আমাদের উদ্দেশ্য রক্ত হনন নয়, যে কারণে আজ দস্যুরা আত্মসমর্পণ করছে, জঙ্গি, মাদকসেবী ও মাদক বিক্রেতারা যারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চায় তাদের সুযোগ দেয়া হচ্ছে। সেজন্য সরকার পদক্ষেপ নিয়েছে।

অনুষ্ঠানে ৫০ জন মাদকসেবী ও মাদক বিক্রেতাকে একটি করে সেলাই মেশিন ও ৪ হাজার করে টাকা বিতরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*