Thursday , October 18 2018
Home / খেলাধুলা / বিশ্ব যুব অ্যাথলেটিকসে বাংলাদেশের জহিরের চমক

বিশ্ব যুব অ্যাথলেটিকসে বাংলাদেশের জহিরের চমক

‘সেরাটা দিয়ে সেমিফাইনালে উঠতে চাই’—ঢাকা ছাড়ার আগে বলেছিলেন জহির রায়হান। কেনিয়ায় বিশ্ব যুব অ্যাথলেটিকসে কথা রেখেছেন তিনি। আজ নাইরোবিতে ৪০০ মিটারে দৌড়ে হিটের সেমিফাইনালে উঠেছেন ১৭ বছর বয়সী অ্যাথলেট।

বিকেএসপির এই অ্যাথলেট দৌড়েছেন এক নম্বর হিটে। সময় নিয়েছেন ৪৮.০০ সেকেন্ড। ওই হিটের আটজনের মধ্যে তৃতীয় হয়ে সেমিতে উঠেছেন শেরপুরের তরুণ। জহিরের সঙ্গে দৌড়েছেন উসাইন বোল্টের দেশ জ্যামাইকার অ্যান্থনি কক্স। তিনি ৪৬.৫৩ সেকেন্ড সময় নিয়ে প্রথম হয়ে ওঠেন সেমিফাইনালে।
এর আগে ১৯৯৮ মস্কো বিশ্ব যুব গেমসে ১০০ মিটার স্প্রিন্টে সেমিফাইনালে উঠেছিলেন সাবেক অ্যাথলেট এবং জহিরের কোচ আবদুল্লাহ হেল কাফি। বাংলাদেশের রুগ্ণ অ্যাথলেটিকসে অনেক দিন পর জহিরের এমন ফল একটা বড় চমক। অনেক বছর ধরে দক্ষিণ এশিয়ার বাইরে আন্তর্জাতিক গেমসে প্রাথমিক হিটে বাদ পড়াটা অভ্যাসে পরিণত করে ফেলেছেন বাংলাদেশের অ্যাথলেটরা।
সর্বশেষ ভারতের ভুবনেশ্বরে গত সপ্তাহে শেষ হওয়া এশিয়ান ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডেও দেখা গেছে বাংলাদেশের অ্যাথলেটদের এই পরিণতি। সেদিক দিয়ে ব্যতিক্রম জহির। ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় জহিরের পারফরম্যান্সই আশাবাদী করে তোলে কোচ আবদুল্লাহ হেল কাফিকে। গত বছর জাতীয় জুনিয়র মিটে দ্বিতীয়বার অংশ নিয়েই ২০০ মিটারে রেকর্ড গড়েন জহির। গত মে মাসে থাইল্যান্ডে ক্যারিয়ারের প্রথম আন্তর্জাতিক আসর এশিয়ান যুব অ্যাথলেটিকসে গিয়ে ২০০ মিটারে ভালো করতে পারেননি। তবে ৪৯.১২ সেকেন্ডে দৌড়েই পেয়ে যান কেনিয়ায় যুব বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের টিকিট। কাল কেনিয়া থেকে মুঠোফোনে উচ্ছ্বসিত জহির বলছিলেন, ‘নিজের পারফরম্যান্সে খুব খুশি। প্রত্যাশার চেয়ে অনেক ভালো করেছি এখানে। তবে সেমিফাইনালেই থেমে থাকতে চাই না। ফাইনালে দৌড়াতে চাই।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*