Tuesday , September 25 2018
Home / বাংলাদেশ / রংপুর বিভাগ / রংপুরে নেশার টাকা যোগাতে না পেরে স্ত্রীকে হত্যা

রংপুরে নেশার টাকা যোগাতে না পেরে স্ত্রীকে হত্যা

মো:ইসতিয়াক ফারদিন সজীব,রংপুর:

রংপুর মিঠাপুকুর উপজেলার এক গৃহবধুকে তার স্বামী নেশার করার টাকা না পেয়ে পিটিয়ে হত্যা করছে। এ ঘটনায় নিজেরর ভাই থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ঘাতক স্বামী ও তার স্বজনেরা পালিয়ে গেছেন। পুলিশ কবিরন নেছা (২৭) নামে ২ সন্তানের জননী ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত করেছে। গতকাল শুক্রবার তার লাশ দাফন করেছে স্বজনেরা।

এলাকাবাসি, নিহতের স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ইমাদপুর ইউনিয়নের তেঁতুলিয়া গ্রামের মৃত. নজরুল ইসলামের মেয়ে কবিরন নেছার (২৭) সাথে প্রায় ১০ বছর আগে বিয়ে হয় ইমাদপুর পশ্চিমপাড়া (গয়েশপুর) গ্রামের চাঁন মিয়া ছেলে ভ্যান চালক শরিফুল ইসলামের (৩৫)। তাদের দাম্পত্য জীবনে ২ জন ছেলেমেয়ে রয়েছে। বিয়ের পর থেকে মদ্যপ স্বামী কারণে অকারণে কবিরনকে মারপিট করতো। নেশার টাকা যোগান দিতে চাপ দিতো কবিরনকে। অনেক সময় মানুষের বাড়িতে কাজ করে স্বামীর হাতে টাকা তুলে দিতেন ওই গৃহবধূ।

কোনদিন টাকা দিতে না পারলে কবিরনের ওপর নেমে আসত নিমর্ম নির্যাতন। শরিফুল বেধড়ক পেটাত। সম্প্রতি, নেশা করার টাকা যোগান দিতে বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনার জন্য চাপ দেয় শরিফুল। এতে, অস্বীকৃতি জানালে কবিরনকে বেদম মারপিট করতো। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার শরিফুল স্ত্রী কবিরনকে রড ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। এতে সে গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। বিনা চিকিৎসায় স্বামীর বাড়িতে পড়ে থেকে এক পর্যায়ে কবিরন মৃত্যুর কোলে ঢলিয়ে পড়ে। অবস্থা বেগতিক দেখে শরিফুল ও তার পরিবারের লোকজন পালিয়ে যায়। প্রতিবেশিরা স্থানীয় বৈরাতী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে খবর দেয়।

পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে। গতকাল শুক্রবার নিহতের বাবার বাড়িতে পারিবারিক কবরস্থানে লাশ দাফন করা হয়েছে। মিঠাপুকুর থানার ওসি মোজাম্মেল হক বলেন, এ ঘটনায় নিহতের ভাই আকমল হোসেন বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আসামীরা পলাতক থাকায় গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে, গ্রেফতারের জন্য জোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*