Sunday , September 23 2018
Home / বাংলাদেশ / রংপুর বিভাগ / রংপুর গঙ্গাচড়ায় তিস্তার ভাঙনে ৩০ পরিবারের বাড়ি বিলীন হুমকিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান 

রংপুর গঙ্গাচড়ায় তিস্তার ভাঙনে ৩০ পরিবারের বাড়ি বিলীন হুমকিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান 

মিজানুর রহমান লুলু,  রংপুর প্রতিনিধি :

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢল ও ভারী বর্ষণে তিস্তার পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। রংপুরের গঙ্গাচড়ায় তিস্তার ভাঙনে মসজিদসহ ৩০ পরিবারের বাড়ি-ঘর বিলীন হয়ে গেছে। হুমকিতে রয়েছে কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। ভেঙে গেছে ব্রিজ, রাস্তা ও জমি-জমা গাছপালা। মানুষজন গাছ বাঁশ দিয়ে ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা করছে।

জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে তিস্তার পানি বৃদ্ধি পেয়ে প্রবল স্রোতে উপজেলার লক্ষীটারী ও কোলকোন্দ ইউনিয়নে ভাঙন দেখা দেয়। তিস্তার অব্যাহত ভাঙনে কোলকোন্দ ইউনিয়নের বিনবিনা চরের আনোয়ার, গুটলু, ফুলু, দয়াল, বল্টু ও লক্ষীটারী ইউনিয়নের পূর্ব ইচলীর সেকেন্দার, সইয়ুদ, মাজেদা, আমিন, ওলিয়ার, আনোয়র, ছুপিয়া, জয়নাল, বাবু, সন্তেষ, হাককু, মতিয়ার, ছবুর, জয়নাল, নায়েব, ওয়ারেছ, দুলু, ইলিয়াছ, বারেক, রজব, মতিনসহ ৩০ পরিবারের বাড়ি-ঘর, গাছপালা, জমি-জমা বিলীন হয়ে যায়। এছাড়া বিনবিনায় জাগরণী চক্র ফাউন্ডেশন কর্তৃক পরিচালিত বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস্তফা কামাল আনন্দলোক বিদ্যালয়, সাউদপাড়া ইসলামিয়া আলীম মাদরাসা হুমকির মুখে পড়েছে।

এছাড়া শংকরদহ পুরাতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে ভাঙন লেগেছে। যে কোন সময় দ্বিতল ভবনের এ বিদ্যালয়টি বিলীন হয়ে যেতে পারে। শংকরদহ বিদ্যালয়ের পাশের মসজিদটি তিস্তায় বিলীন হয়ে গেছে। সাউদপাড়া মাদরাসা যাওয়ার রাস্তা, আনন্দোলোক বিদ্যালয় যাওয়ার রাস্তা, শংকরদহ চরে রাস্তা, জোড়া ব্রিজ, মহিপুর টু কাকিনা রাস্তায় শংকরদহ বিদ্যালয়ের পাশে ব্রিজের দু-মোকায় ভাঙন দেখা দিয়েছে। শিক্ষার্থীরা অনেকে ভয়ে বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। এসব এলাকার লোকজন আতঙ্কে দিন-রাত কাটাচ্ছেন। তারা ভাঙন থেকে রক্ষা পেতে বাঁশ, গাছ ও বালুর বস্তা ফেলছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাঙন রোধে দ্রুত কোন পদক্ষেপ না নিলে এসব প্রতিষ্ঠান রক্ষা করা যাবেনা বলে স্থানীয়রা জানান। নোহালী ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ জানান, চর নোহালী আশ্রয়ণ কেন্দ্র হুমকির মুখে। জরুরী ভিত্তিতে কাজ না করলে আশ্রয়ণটি নদী গর্ভে বিলীন হতে পারে। লক্ষীটারী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল হাদী বলেন, দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বিষয়টি কর্তৃপক্ষে অবগত করা হয়েছে। শংকরদহ বিদ্যালয় রক্ষার জন্য রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড জরুরী ভিত্তিত্বে কাজ শুরু করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*