Sunday , July 22 2018
Home / বাংলাদেশ / রংপুর বিভাগ / রংপুর সিটি নির্বাচনে ডিজিটাল প্রচারণায় ঝন্টু যা করলেন!

রংপুর সিটি নির্বাচনে ডিজিটাল প্রচারণায় ঝন্টু যা করলেন!

ইসতিয়াক ফারদীন ও শাহরিয়ার মিম:
আগামী ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য রংপুর সিটি নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা এখন তুঙ্গে। আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয়পার্টি, ওয়ার্কার্স পার্টি, এনপিপি,ইসলামী আন্দোলনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মেয়র প্রার্থীরা এবং সতন্ত্র প্রার্থীরা মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। বসে নেই সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর ও সাধারন কাউন্সিলর প্রার্থীরা।

সিটি করপোরেশনে বর্তমানে ভোটার রয়েছে তিন লাখ ৮৮ হাজার ৪২১ জন। এর মধ্যে পুরুষ এক লাখ ৯৬ হাজার ৬৫৯ এবং নারী এক লাখ ৯১ হাজার ৭৬২ জন। সম্ভাব্য ভোটকেন্দ্র ১৯৬টি, ভোটকক্ষ এক হাজার ১৭৭টি। পাঁচ বছর আগে এ নির্বাচনের ভোটার ছিল তিন লাখ ৫৭ হাজার ৭৪২ জন।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই সিটি করপোরেশনে মোট সাতজন মেয়র প্রার্থীসহ মোট ২৮৩ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।মেয়র প্রার্থীরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত শরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু,নৌকা, বিএনপির কাওছার জামান বাবলা,ধানের শীষ, জাতীয় পার্টির মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা,লাঙল, স্বতন্ত্র প্রার্থী (জাতীয় পার্টির বিদ্রোহী) জাপা চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ,হাতি মার্কা, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এনপিপি) প্রার্থী সেলিম আখতার,আম মার্কা, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) আবদুল কুদ্দুস, মই ও ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের এ টি এম গোলাম মোস্তফা,হাতপাখা। এ ছাড়া ৩৩টি সাধারণ কাউন্সিলর পদে ২১১ জন এবং ১১টি সংরক্ষিত নারী পদে ৬৫ প্রার্থী রয়েছেন লড়াইয়ের ময়দানে।

আজকে প্রতীক বরাদ্ধ হল। শুরু হলো কান ঝালাপালা মাইকিং । মাইকিং এর জ্বালায় থাকা মুশকিল। তারই প্রেক্ষিতে আজ নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে সাবেক মেয়র সরফুদ্দীন আহম্মেদ ঝন্টুর গেলো পাঁচ বছরের রংপুর সিটির উন্নয়নের ধারাবাহিকতা প্রজেক্টরের মাধ্যমে জনগনের সামনে তুলে ধরা হচ্ছে এবং জানান দিচ্ছে তার অসমাপ্ত উন্নয়নের অব্যাহত ধারাকে সামনের রসিক নির্বাচনে বিজয়ী করে প্রমান করে দিতে। আসলে সচেতন মহল মনে করেন, পৌরসভা থেকে উন্নত হয়ে সিটি কর্পোরেশন অব্দি একমাত্র এই ঝন্টুর আমলেই বেশী উন্নয়ন হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*