Monday , August 20 2018
Home / বাংলাদেশ / রংপুর বিভাগ / ‘লাঙল’ রংপুরবাসীর আদর্শের প্রতীক: জাপা মনোনীত প্রার্থী মোস্তফা

‘লাঙল’ রংপুরবাসীর আদর্শের প্রতীক: জাপা মনোনীত প্রার্থী মোস্তফা

মো:ইসতিয়াক ফারদিন সজীব,রংপুর:
সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের দুর্গ বলে পরিচিত লাঙল মার্কাকে নির্বাচিত করে। জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, লাঙল রংপুরবাসীর আদর্শের প্রতীক। এই প্রতীক নিয়ে নগরের সব ভোটারই চিন্তাভাবনা করছেন।

রংপুর সিটি কর্পোরেশনে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে শুরু হয়েছে ভোটযুদ্ধ। নগরীর ভোটারদের কাছে তাই ছুটে চলছেন মেয়র প্রার্থীরা। যে যার মতো ঘুরে বেড়াচ্ছেন নগরীর অলি-গলিতে। তারই ধারাবাহিকতায় বুধবার দুপুরে গণসংযোগ শুরু করেছেন জাতীয় পার্টি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা।

তিনি দুপুরে জাহাজ কোম্পানির মোড় থেকে প্রচারণা শুরু করেন। ফুটপাত, ব্যবসায়ী, শ্রমিক ও সর্বসাধারণের কাছে দোয়া ও ভোট প্রার্থনা করছেন। তিনি মেয়র নির্বাচিত হলে নাগরিক ভাবনা ও কী কী প্রত্যাশা রয়েছে, সেগুলো নিয়ে গুরুত্বের সঙ্গে কাজ করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন। তিনি জানিয়েছেন, তার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন রংপুরকে সুন্দর নগরী উপহার দেয়া।

তিনি লাঙলকে বিজয়ী করতে রংপুরবাসীর সহযোগিতাও কামনা করছেন। আর যদি নির্বাচিত হতে পারেন তাহলে এই নগরীকে মাস্টারপ্ল্যান করে উন্নত ও সমৃদ্ধ নগরী হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে চেষ্টা করে যাবেন তিনি।

নির্বাচনের আচরণ বিধি নিয়ে অভিযোগ করে জাতীয় পার্টি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা জানান, সরকার দলীয় সমর্থকরা শুরু থেকে আচরণবিধি লংঘন করে যাচ্ছে। কিন্তু নির্বাচন কমিশন কোনো ব্যবস্থাই নিচ্ছে না। তবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সদিচ্ছা রয়েছে রসিক নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও সবার কাছে গ্রহণযোগ্য হউক। সেই মোতাবেক আচরণবিধি নিয়ে রংপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তারা সবার ক্ষেত্রে সমানভাবে নির্দেশনা বজায় রাখবেন বলেও আশা করেন তিনি।

এই মেয়র প্রার্থী বলেন, নগরীর ৩৩টি ওয়ার্ডেই গণসংযোগ চলছে লাঙলের। কোথাও নির্বাচনের আচরণবিধি এখন পর্যন্ত লংঘন হয়নি। নির্বাচনে তার নেতাকর্মীদের মনোবল ভাঙার জন্য নেগেটিভ প্রচারণা চালাচ্ছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী সরফুদ্দিন আহম্মেদ ঝন্টু- এমন অভিযোগ তুলে তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, একজন প্রার্থী আরেকজন প্রার্থীর বিরুদ্ধে নেগেটিভ প্রচারণা চালানো কারো কাম্য নয়।

তিনি বলেন, লাঙলকে ভোট না দেয়ার যে লিফলেট বা রংপুরবাসীকে মফিজ বানানোর যে প্রচারণা চালিয়েছেন, সেটা নির্বাচন কমিশনের বরাবর লিখিত চিঠি দিয়েছি। কমিশন সেটার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেবে- এই প্রত্যাশা করি। রংপুরবাসীকে মফিজ বানানোর যে কথা আ’লীগ প্রার্থী বলেছেন, সেই কথার ভিত্তিতে তিনি বলেন, এসব কথায় মানুষের মাঝে হিংসা ও বিদ্বেষের জন্ম নেবে। যেকোনো সময় যেকোনো উচ্ছৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি হতে পারে। সুতরাং এসব কথা এড়িয়ে চলাই সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য শ্রেয়।

নির্বাচনে ইভিএম নিয়ে মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, এটাতে দেশে-বিদেশে বিভিন্ন জায়গায় ভোট টেম্পারিংয়ে কারচুপির অভিযোগ রয়েছে সুতরাং এই নির্বাচনে এটা নিয়ে নির্বাচন কমিশনকে চিন্তা ভাবনা না করাই ভালো। কয়েকটি সেন্টারে সিসি ক্যামেরা প্রসঙ্গে বলেন, সিসি ক্যামেরা কমিশন নিজদের দেখভাল করলেই হবে না সেটাকে মিডিয়ায় প্রকাশ করা উচিত হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*