Thursday , October 18 2018
Home / বাংলাদেশ / রংপুর বিভাগ / লালমনিরহাটেরর একই পরিবারের তিন ভাই-বোনের বাঁচার আকুতি

লালমনিরহাটেরর একই পরিবারের তিন ভাই-বোনের বাঁচার আকুতি

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: ক্ষুধা রোগে শোকে যন্ত্রনা বুকে অনাহারি কেঁদে মরে ধুকে ধুকে। দীনতার সাথে লড়ে যায় অসহায়-তবু ওরা তিন ভাই বোন বাঁচতে চায়। একই পরিবারের তিন ভাই বোন শিশু মিমি (২),জহুরুল ইসলাম (১২),খায়রুল ইসলাম (১৪) থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত। প্রতিনিয়ত মৃত্যু তাদের পিছু নিয়েছে।

লালমনিরহাট জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার উত্তর গোতামারী গ্রামের দিনমজুর সামসুল ইসলাম ও খায়রুন নেছা তিন সন্তান। দারিদ্রতার শেষ নেই। নুন আনতে পান্তা ফুরায়। কাজ না করলে দুইবেলা খাবার জুটেনা তাদের। জন্মের পর থেকেই তাদের তিন সন্তানের থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত। ১৪ বছর ধরে সন্তানের চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করে সব হারিয়ে সামসুল ইসলাম আজ নি:শ্ব।

থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত মেধাবী ছাত্র জহুরুল ইসলাম উত্তর গোতামারী আজিম বাজার ৬ষ্ট শ্রেণীর ও খায়রুল ইসলাম রহমানীয়া দাখিল মাদ্রাসায় ৭ম শ্রেণীতে পড়েন।

প্রতি ২ মাস অন্তর ৩ সন্তানের জন্য আড়াই ব্যাগ (বি-পজেটিভ) রক্ত এবং বিভিন্ন পরীক্ষা ও চিকিৎককের ফি সহ প্রায় ২০ হাজার টাকা প্রয়োজন।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক এমবিবিএস এফসিপিএস (হেমাটোলজি) রক্তরোগ বিশেষজ্ঞ ডা: একে এম কামরুজ্জামান জানিয়েছেন, থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্তদের প্রতি দুইমাস পর পর তিন সন্তানের জন্য নতুন রক্তের প্রয়োজন। তাদের প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত চিকিৎসা চলবে।

দিনমজুর পিতা সামসুল ইসলাম ও মাতা খায়রুন নেছার পক্ষে প্রতি দুই মাস পর পর ২০ হাজার টাকা যোগাড় করা কোনক্রমে সম্ভব নয়।

তাই সন্তানদের বাঁচাতে সমাজের বিত্তবান মানুষের কাছে থ্যালাসেমিয়া রোগে আক্রান্ত তিন সন্তানের চিকিৎসা ব্যয়ের জন্য আর্থিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

দিনমজুর সামসুল ইসলাম বলেন, সমাজের মানুষের কাজে হাতপাতা ছাড়া কোন উপায় নেই। তারা যদি এগিয়ে আসে তাহলে সন্তানদের বাঁচাতে পারব।

সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা, মো: সামসুল ইসলাম, যোগাযোগ মোবাইল নং-০১৭৭৪-৫৫৪৫১৬ ও বিকাশ নম্বর- ০১৭৭৪-৫৫৪৫১৬।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*