Sunday , August 19 2018
Home / বিনোদন / ২০ বছর পর একসঙ্গে গাইবেন দুই বোন প্রকাশ

২০ বছর পর একসঙ্গে গাইবেন দুই বোন প্রকাশ

rebekaandabida_44349

অভি মঈনুদ্দীন

আজ থেকে প্রায় ২০ বছর আগে সুইডেনের একটি শোতে একই মঞ্চে সঙ্গীত পরিবেশন করেছিলেন দুই বোন দুই গুণী সঙ্গীতশিল্পী বেবেকা সুলতানা ও আবিদা সুলতানা। দীর্ঘ বিশ বছর পর তারা দুজন আবারো একই মঞ্চে আজ গাইতে যাচ্ছেন।

চ্যানেল আইয়ের নিয়মিত সরাসরি গানের অনুষ্ঠান ‘ওয়ালটন ঘরে ঘরে আমাদের পণ্য গানের উৎসব’অনুষ্ঠানে রবিবার দুপুর ২টার সংবাদের পর শ্রোতা দর্শকদের গান গেয়ে শুনাবেন বেবেকা সুলতানা ও আবিদা সুলতানা।

রেবেকা সুলতানা বলেন, ‘বিশেষ কৃতজ্ঞতা চ্যানেল আইয়ের প্রতি যে তারা আগ্রহী হয়ে আমাদের দুবোনকে একসঙ্গে নিয়ে গানের এই অনুষ্ঠানটি করছেন। অনুষ্ঠানের প্রযোজকের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ। এই অনুষ্ঠানে আমি পঞ্চ কবির গান এবং হারানো দিনের গান পরিবেশন করবো। পাশাপাশি শ্রোতাদের অনুরোধের গানতো গাইবোই। সবার প্রতি বিশেষ অনুরোধ থাকবে অনুষ্ঠানটি দেখার জন্য।’

আবিদা সুলতানা বলেন, ‘বিশ বছর আগে আমি আর আপা একইমঞ্চে গান গেয়েছিলাম। বিশ বছর পর আবার দুই বোন একসঙ্গে গাইছি এটা সত্যিই ভীষণ ভালোলাগার। আমি আজ সিনেমার গানই শ্রোতা দর্শকদের বেশি শুনাবো। পাশাপাশি অনুরোধের গানও শুনাবো। সবসময়ই ধন্যবাদ জানাই চ্যানলে আই পরিবারকে।’

অনন্যা রুমা প্রযোজিত সরাসরি এই অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করবেন দিলরুবা সাথী।

উল্লেখ্য, বহুদিন দেশের বাইরে থাকায় খুব বেশি গানের এ্যালবাম প্রকাশ করতে পারেননি রেবেকা সুলতানা। তারপরও তার পাঁচটি গানের এ্যালবাম আছে। অন্যদিকে আবিদা সুলতানার একক এ্যালবাম নয়টিরও বেশি এবং ডুয়েট এ্যালবাম দু’তিনটি আছে।

রেবেকা সুলতানা প্রথম প্লে-ব্যাক করেন খান আতাউর রহমানের ‘ঝড়ের পাখি’ সিনেমায়। পরবর্তীতে তিনি ‘ভাওয়াল সন্নাসী’, ‘পারুলের সংসার’সিনেমাতে প্লেব্যাক করেন।

এদিকে আবিদা সুলতানা প্রথম প্লেব্যাক করেন আমির আলীর সুরে ববিতা অভিনীত ‘ইয়ে করে বিয়ে’সিনেমাতে। আলমগীর কবির পরিচালিত ‘সীমানা পেরিয়ে’ সিনেমাতে ‘বিমূর্ত এই রাত্রি আমার মৌনতারই সুতোয় বুনা একটি রঙ্গিন চাঁদর’ গানটি

একজন গায়িকা হিসেবে তাকে অন্যরকম উচ্চতায় নিয়ে যায়। এরপর তিনি বহু চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক করেছেন। গানের ভুবনে দুবোনই নিজেদের গান দিয়ে শ্রোতাপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*