Wednesday , September 19 2018
Home / বাংলাদেশ / ৫ ঘণ্টা পর সিলেটের সঙ্গে ঢাকা-চট্টগ্রামের রেল যোগাযোগ শুরু

৫ ঘণ্টা পর সিলেটের সঙ্গে ঢাকা-চট্টগ্রামের রেল যোগাযোগ শুরু

পাঁচ ঘণ্টারও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর সিলেটের সঙ্গে ঢাকা ও চট্টগ্রামের রেল যোগাযোগ চালু হয়েছে। আজ রোববার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে রেল সেতুর নিচের মাটি সরে একটি সেতুর গার্ডার ফেটে যাওয়ায় সিলেটের সঙ্গে ঢাকা ও চট্টগ্রামের রেল যোগাযোগ বন্ধ হয়ে পড়ে​ছিল।

আজ রোববার বেলা সাড়ে তিনটায় শ্রীমঙ্গল থেকে ভানুগাছ স্টেশনে আসার পথে পাহাড়ি এলাকার ১৫৭ নম্বর রেল সেতু এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। মেরামত কাজ শেষে আটকা পড়া পাহাড়িকা এক্সপ্রেস রাত ৮টা ৪০ মিনিটে শ্রীমঙ্গল ছেড়ে আসে।

শমসেরনগর রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার আবদুল আজিজ বলেন, সেতুটি পুরোপুরি মেরামত না হওয়া পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার গতিতে সেতুটি পার হতে হবে। আর সেতু এলাকা তদারকির জন্য একজনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তাঁর কাছে একটি সই করার খাতা থাকবে। সেতু পার হওয়ার আগে চালক ওই বইয়ে সই করে পাঁচ কিলোমিটার গতিতে সেতুটি পার হবেন।

শ্রীমঙ্গলস্থ গণপূর্ত (রেল) সূত্রে জানা যায়, রোববার বিকেল সাড়ে তিনটায় ১৫৭ নম্বর রেল সেতুর নিচের মাটি সরে গেলে সেতুটির গার্ডার ফেটে যায়। এ অবস্থায় চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা সিলেট অভিমুখী আন্তনগর পাহাড়িকা ট্রেন শ্রীমঙ্গল স্টেশনে আটকা পড়ে। অপর দিকে সিলেট থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী আন্তনগর পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেন ভানুগাছ স্টেশনে আটকা পড়ে। আর হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে আটকা পড়ে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ও আখাউড়া থেকে সিলেটগামী একটি ডেমু ট্রেন।

রোববার সন্ধ্যা সাতটায় গণপূর্ত (রেল)-এর জ্যেষ্ঠ প্রকৌশলী পীযূষ কান্তি দে বলেন, ঘটনার খবর পেয়েই লোকজন নিয়ে মেরামত কাজ শুরু করা হয়েছে। আপাতত কিছু মেরামত কাজ হয়েছে। এরপর মালবাহী ট্রেনের তিনটি খালি বগিসহ একটি ইঞ্জিন পারাপার করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। পরে খুবই ধীর গতিতে পাহাড়িকা এক্সপ্রেস সেতুটি পার হয়।

ঘটনার পরপরই ভানুগাছ স্টেশনের মাস্টার আফজাল হোসেন জানিয়েছিলেন, পাহাড় ধসে সেতুটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*