নতুন উপন্যাস লিখছেন নির্বাসিত লেখক তসলিমা নাসরিন। আগামী বছর অমর একুশে গ্রন্থমেলায় উপন্যাসটি প্রকাশ করবে শ্রাবণ প্রকাশনী। তার নিষিদ্ধ উপন্যাস ‘ক’ প্রকাশিত হওয়ার ১৩ বছর পর ঢাকা থেকে তসলিমা নাসরিনের কোন উপন্যাস প্রকাশিত হতে যাচ্ছে।

সাধারণত ধর্ম, নারী স্বাধীনতা এবং পুরুষতান্ত্রিকতার বিরুদ্ধে কড়া ভাষায় লিখে নানা সময়ে বিতর্কের জন্ম দিলেও এবারের বিষয়, আঙ্গিকে উপন্যাসটি হতে পারে ব্যতিক্রমী।

তসলিমার এই ব্যতিক্রমী উপন্যাস লেখা নিয়ে শ্রাবণ প্রকাশনীর প্রকাশক রবীন আহসান চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন,“উপন্যাসটি সবেমাত্র লিখতে শুরু করেছেন তিনি। নাম ঠিক হয়নি। প্রচলিত দৃষ্টিতে তসলিমা নাসরিনকে যেসব লেখার জন্য ধর্মবিরোধী বলে সমালোচনা করা হয় এই উপন্যাসটি ঠিক সেরকম কিছু নয়। এবারের উপন্যাসটি হতে যাচ্ছে প্রেমের উপন্যাস।”

১৩ বছর বয়স থেকে লেখালেখি শুরু করা তসলিমা নাসরিন আজ আলোচিত-সমালোচিত এক নারী লেখক। অপরপক্ষ, শোধ, লজ্জা, ভ্রমর কইও গিয়া, নিমন্ত্রণ, শোধ, শরম ইত্যাদি তার লেখা উপন্যাস।

আশির দশকে একজন উদীয়মান কবি হিসেবে সাহিত্যজগতে প্রবেশ করে তসলিমা গত শতকের শেষের দিকে নারীবাদী ও ধর্মীয় সমালোচনামূলক রচনার কারণে আন্তর্জাতিক খ্যাতি লাভ করেন।

তিনি তাঁর রচনা ও বক্তৃতার মাধ্যমে লিঙ্গসমতা, মুক্তচিন্তা, ধর্মনিরপেক্ষ মানবতাবাদ ও মানবাধিকারের প্রচার করায় ধর্মীয় মৌলবাদী গোষ্ঠীর রোষানলে পড়েন ও হত্যার হুমকি পেতে থাকায় ১৯৯৪ সালে বাংলাদেশ ত্যাগ করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাস করতে বাধ্য হন। বর্তমানে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন।