Thursday , October 18 2018
Home / অর্থনীতি / শেষ হলো খুলনা অঞ্চলের গণিত উৎসব

শেষ হলো খুলনা অঞ্চলের গণিত উৎসব

শিক্ষার্থীদের গণিত ভীতি কাটিয়ে শেষ হলো খুলনা অঞ্চলের গণিত উৎসব। আজ সোমবার খুলনার পাইওনিয়ার মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় মাঠে এ গণিত উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এতে খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট ও গোপালগঞ্জ জেলার ৯৩টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৭৩২ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

সকালে হাড়কাঁপানো শীতের মধ্যেও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে উৎসবস্থল মিলনমেলায় পরিণত হয়। প্রাথমিক, নিম্ন মাধ্যমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক—এই চার বিভাগে ভাগ হয়ে শিক্ষার্থীরা গণিত প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। মোট ৫৯ জন বিজয়ীর হাতে ক্রেস্ট, সনদপত্র ও বিভিন্ন উপহারসামগ্রী তুলে দেন অতিথিরা ।

প্রাইমারি ক্যাটাগরিতে খুলনা কলেজিয়েট গার্লস স্কুলের নাফিসা হাসান নিহা, জুনিয়র ক্যাটাগরিতে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্কুলের রেজওয়ান আরেফিন, সেকেন্ডারিতে সরকারি ল্যাবরেটরি হাইস্কুলের মওদুদ হাসান ও হায়ার সেকেন্ডারি ক্যাটাগরিতে সরকারি এম এম সিটি কলেজের তানভীর আহাদ জয় চ্যাম্পিয়ন অব দ্য চ্যাম্পিয়ন হয়।

‘গণিত শেখো স্বপ্ন দেখো’—এই স্লোগান নিয়ে এবারের গণিত উৎসবের ১৪তম আসরের পৃষ্ঠপোষকতায় রয়েছে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড। সার্বিক ব্যবস্থাপনায় রয়েছে প্রথম আলো। পুরো উৎসবে সহযোগিতা করছেন প্রথম আলোর স্থানীয় বন্ধুসভার সদস্যরা।

পাইওনিয়ার স্কুলের মাঠে সকাল সোয়া নয়টায় জাতীয় সংগীতের সুরে জাতীয় পতাকা, বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা ও আন্তর্জাতিক গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা উড়িয়ে উৎসবের উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন খুলনা জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মনিরুজ্জামান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রখ্যাত গণিতবিদ অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক শিবেন্দ্র শেখর শিকদার, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের প্রধান অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের প্রধান অধ্যাপক কামরুল হাসান তালুকদার, পাইওনিয়ার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফরোজা খানম প্রমুখ। শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নেরও জবাব দেন তাঁরা।

লিখিত পরীক্ষা শেষে ‘বন্ধুতা’ পর্বে শিক্ষার্থীরা একে অপরের সঙ্গে পরিচিত হয়। এরপর গণিত উৎসবের গান দিয়ে শুরু হয় শিক্ষার্থীদের প্রশ্নোত্তর পর্ব। প্রশ্নোত্তর পর্বে শিক্ষার্থীদের নানা প্রশ্নের উত্তর দেন অতিথিরা।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন প্রথম আলোর যুব কর্মসূচি সমন্বয়ক মুনির হাসান ও প্রথম আলো খুলনা বন্ধুসভার বন্ধু হেলেন রূপা। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন সজীব কুমার মহলী।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*